ঢাকা, শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৬ মাঘ ১৪২৯, ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

দেশজুড়ে টানা ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা



দেশজুড়ে টানা ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে। ফলে আগামী তিন দিনে সারা দেশে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে এ তথ্য জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক।

তিনি জানান, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে, যা বর্তমানে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমি বায়ুর অক্ষ রাজস্থান, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ লঘুচাপের কেন্দ্রস্থল ও বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।

এই আবহাওয়াবিদ জানান, খুলনা বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়া ও বিজলি চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি বর্ষণ হতে পারে। সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

লঘুচাপ সম্পর্কে কানাডার সাসক্যাচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া ও জলবায়ু গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ বলেন, আজ ১৯ সেপ্টেম্বর উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে ভারতের উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গের মধ্যবর্তী অঞ্চলের উপকূল থেকে প্রায় ৪৫০ কিলোমিটার পূর্বে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে এবং লঘুচাপটি প্রায় স্থলভাগের কাছাকাছি চলে এসেছে।

১৬ সেপ্টেম্বর ইউরোপীয় ইউনিয়নের আবহাওয়া পূর্বাভাস মডেলটি একটি নিম্নচাপ সৃষ্টির পূর্বাভাস দিলেও এটি অপেক্ষা কম শক্তিশালী লঘু চাপে পরিণত হয়েছে। গত সপ্তাহে স্থলভাগে প্রবেশ করা নিম্নচাপের প্রভাবটি পুরোপুরি শেষ হয়ে না যাওয়ার কারণে এটা হয়েছে। এর ফলে দেশে আজ থেকে ৪ দিন বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে', বলেন মোস্তফা কামাল।

আবহাওয়া পূর্বাভাস মডেলগুলোর সবশেষ পূর্বাভাস অনুসারে ভারতের উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গের মধ্যবর্তী স্থানের উপকূলে অবস্থান করা বর্তমান লঘুচাপটি আজ মধ্য রাতের পর থেকে আগামীকাল সকালের মধ্যে উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গের মধ্যবর্তী স্থানের ওপর দিয়ে স্থল ভাগে প্রবেশ করে পশ্চিম দিকে অগ্রসর হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। এই লঘুচাপটির কেন্দ্র বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা থেকে অনেক দূর দিয়ে অতিক্রম করলেও এই লঘুচাপের প্রভাবে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের ওপর বৃষ্টিপাত ঘটানোর প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে।

মোস্তফা কামাল বলেন, বৃষ্টিপাত সবেচয়ে বেশি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে চট্টগ্রাম, বরিশাল ও খুলনা বিভাগের জেলাগুলোর ওপর। দেশে অন্যান্য বিভাগগুলোতে দিনে একাধিকবার বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা নির্দেশ করছে আবহাওয়া পূর্বাভাস মডেলগুলো। আজ থেকে আগামী বুধবার পর্যন্ত সমুদ্র অনেক উত্তাল থাকার সম্ভাবনা নির্দেশ করছে। বিশেষ করে চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগের সমুদ্র উপকূলে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বায়ু প্রবাহিত হওয়ার সম্ভাবনার রয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে চট্টগ্রামে ৪১ মিলিমিটার। অন্যদিকে দেশের শ্রীমঙ্গলে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৩.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।


   আরও সংবাদ