ঢাকা, রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ চৈত্র ১৪২৯, ১০ জ্বমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ব্রেকিং নিউজ: ডিসেম্বরে আরেকটি ঘূর্ণিঝড়!



ব্রেকিং নিউজ: ডিসেম্বরে আরেকটি ঘূর্ণিঝড়!

ডিসেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে (৭ থেকে ১৫ তারিখের মধ্যে) বঙ্গোপসাগরে একটি ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টির সম্ভাবনা নির্দেশ করতেছে আমেরিকার আবহাওয়া পূর্বাভাস মডেল গ্লোবাল ফোরকাস্ট। আজ বুধবার (২৪ নভেম্বর) আবহাওয়া গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ এ তথ্য জানিয়েছেন।  

মোস্তফা কামাল পলাশ বলেন, ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টির জন্য প্রয়োজনীয় বৈশিষ্ট্যগুলো বিশ্লেষণ করে সম্ভাব্য এই ঘূর্ণিঝড়টির সৃষ্টির স্বপক্ষে যুক্তি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে। সম্ভব্য এই ঘূর্ণিঝড়টি সৃষ্টি হলে এর নাম হবে ম্যানদৌস (Mandous)। এই নামটি দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। ঘূর্ণিঝড় সিত্ররাং যে স্থানে সৃষ্টি হয়েছিল সম্ভব্য এই ঘূর্ণিঝড়টিও প্রায় একই স্থানে সৃষ্টির সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।  ডিসেম্বর মাসের ৭ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়টির প্রাথমিক অবস্থা লঘুচাপ সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে আন্দামান ও নিকবার দ্বীপপুঞ্জের আশপাশে। সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়টি হতে পারে ডিসেম্বর মাসের ১০ থেকে ১৫ তারিখের মধ্যে। স্থল ভাগে আঘাতের স্থান হতে পারে বাংলাদেশের চট্টগ্রাম থেকে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের মধ্যবর্তী যে কোন স্থানে। 

এ বিষয়ে মোস্তফাক কামাল পলাশ বলেন,  স্থল ভাগে আঘাত করার স্থানটি পুরোপুরি নির্ভর করবে ভারতীয় উপমহাদেশের ঊর্ধ্ব আকাশ দিয়ে পশ্চিম দিক থেকে পূর্ব দিকে প্রবাহিত জেট স্টিমের অবস্থান ও ঐ জেট স্ট্রিমের মধ্যে অবস্থিত বাতাসের শক্তির উপরে। সম্ভব্য এই ঘূর্ণিঝড় টির পরিণতিও নির্ধারিত হবে জেট স্ট্রিমের বৈশিষ্ট্যের উপর ভিত্তি করে। সাধারণত নভেম্বর মাসের ২ থেকে ৩য় সপ্তাহে ঘূর্ণিঝড় হয়। কিন্তু এই এই বছর বর্ষা মৌসুমের পরের ঘূর্ণিঝড় মৌসুমে শুরুতে অক্টোবর মাসে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং হওয়াা কারণে সমুদ্রে সঞ্চিত থাকা শক্তি ক্ষয় হয়ে গিয়েছিল যার কারণে নভেম্বর মাসের প্রথম ৩ সপ্তাহ প্রায় পুরো শান্ত ছিলও বঙ্গোপসাগরে। 

‘ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংও ছিল কিছুটা ব্যতিক্রম। কারণ এই ঘূর্ণিঝড়টিও সৃষ্টি হয়েছিল মৌসুমের শুরুতে ও বর্ষা মৌসুম শেষ হওয়ার ঠিক পরের সপ্তাহেই। মাত্র এই সপ্তাহে একটা ডিপ্রেশন সৃষ্টি হয়ে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে আঘাত করেছে গতকাল। গুর্নিঝড় সিত্ররাং এর পরে বঙ্গোপসাগরে নতুন করে ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টির জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি জমা হতে সময় লেগেছে। এই নভেম্বর মাসের পরো সময়টা শক্তি জামা হয়েছে যার কারণে ডিসেম্বর মাসের ২য় সপ্তাহ ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টির প্রবল সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।


   আরও সংবাদ